রবিবার, ১৫ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং খ্রিষ্টাব্দ, ৩১শে ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সিলেটের চৌহাট্টায় সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মালের গাড়ীও আটকে দিল ‘সিকৃবি’ শিক্ষার্থীরা

প্রকাশিত : ২৪ মার্চ, ২০১৯

সিলেটের চৌহাট্টায় সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মালের গাড়ীও আটকে দিল ‘সিকৃবি’ শিক্ষার্থীরা

সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ঘোরি মো. ওয়াসিম আব্বাসকে বাসচাপা দিয়ে হত্যার প্রতিবাদে চৌহাট্টায় সড়ক অবরোধ করেছে সিকৃবির শিক্ষার্থীরা। চৌহাট্টায় শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধের মুখে পড়েন সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। এসময় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের অনুরোধেও সাবেক অর্থমন্ত্রী মুহিতের গাড়ী ছাড়েননি বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা।

এর কিছুক্ষণ পর সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত গাড়ী থেকে নেমে হেটে আসেন শিক্ষার্থীদের মঞ্চে। তিনি শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে তাদের দাবীর প্রতি সমর্থণ জানিয়ে সংহতি প্রকাশ করেন।

সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সংহতি প্রকাশ এবং তাদের দাবী সমুহের প্রতি সমর্থন জানানোর কারণে উপস্থিত শিক্ষার্থীরা তাকে সাধুবাদ জানান।

পরবর্তীতে আওয়ামী লীগ নেতাদের অনুরোধের প্রেক্ষিতে শিক্ষার্থীরা সাবেক অর্থমন্ত্রীর গাড়ী ছেড়ে দেন।

জানা যায়, রবিবার দুপুর ১২টা থেকে ওয়াসিম হত্যার প্রতিবাদে নগরীর চৌহাট্টায় অবস্থান নিয়ে সড়ক অবরোধ করে রাখেন সিকৃবির শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীদের অবরোধে চৌহাট্টার চার দিকে শত শত গাড়ী আটকা পড়ে।

দীর্ঘ যানজটে আটকা পড়ে শত শত যানবাহন। তবে, দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে চৌহাট্টায় সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের গাড়ী পৌছালে অবরোধের মুখে পড়ে। এসময় মুহিতের গাড়ী দেখেও শিক্ষার্থীরা রাস্তা ছেড়ে দেয় নি।

অবরোধের মুখে পড়া আবুল মাল আব্দুল মুহিতের গাড়ী থেকে নেমে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী নেমে শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলেন। তবে শিক্ষার্থীরা নাছোড়বান্দা। তারা ওয়াসিম হত্যার বিচার নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত অবরোধ তুলবেন না, কোন গাড়ী ছাড়বেন না।

এসময় সাবেক অর্থমন্ত্রীর গাড়ীর পেছনের গাড়ীতে থাকা সদর উপজেলার চেয়ারম্যান এবং সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আশফাক আহমদও নেমে এসে শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলে সাবেক অর্থমন্ত্রীর গাড়ী ছেড়ে দিতে অনুরোধ জানান। তবে, শিক্ষার্থীরা কোন কথাই শুনতে রাজী হননি। তাদের দাবী একটাই, \’উই ওয়ান্ট জাস্টিস\’।

তবে শেষ পর্যন্ত, সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত গাড়ী থেকে নেমে বিক্ষুব্ধ শিক্ষারথীদের আন্দোলনে সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য প্রদান করেন। তিনি শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সমর্থন প্রদান করেন। পরবর্তীতে আওয়ামী লীগ নেতার অনুরোধে সাবেক অর্থমন্ত্রীর গাড়ী ছেড়ে দেওয়া হয়। সেখান থেকে অর্থমন্ত্রীর গাড়ী সিলেট বিমানবন্দরের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয় বলে জানা গেছে।

X