রবিবার, ১৫ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং খ্রিষ্টাব্দ, ৩১শে ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

পাকিস্তানে দুই হিন্দু তরুণীকে জোর করে ধর্মান্তর; ব্যবস্থার নির্দেশ ইমরানের

প্রকাশিত : ২৪ মার্চ, ২০১৯

পাকিস্তানে দুই হিন্দু তরুণীকে জোর করে ধর্মান্তর; ব্যবস্থার নির্দেশ ইমরানের

পাকিস্তানের সিন্ধুপ্রদেশের দুই হিন্দু তরুণীকে অপহরণের পর জোর করে ধর্মান্তরিত ও বিয়ে করার অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম ‘দ্য ডন’ জানিয়েছে, দুই হিন্দু তরুণীকে অপহরণ, জোর করে তাদের ধর্মান্তর ও অনিচ্ছা থাকার পর জোর করে বিয়ের খবর ছড়িয়ে পড়লে তোলপাড় সৃষ্টি হয় সিন্ধুপ্রদেশে।

এ ঘটনায় ক্রমশ আক্রমণাত্মক রুপ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেন।

ডন জানায়, বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে ওই দুই তরুণীর বাবা ও ভাইয়ের ভিডিও বার্তা ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওগুলোতে তাদের বলতে দেখা যায়, তাদের মেয়ে ও বোনকে জোরপূর্বক হিন্দুধর্ম থেকে মুসলিম ধর্মে ধর্মান্তরিত করা হয়েছে।

ঘোটকি নামক স্থান থেকে রহিম ইয়ার খান নামক স্থানে নিয়ে তাদের ধর্মান্তর ও ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিয়ে করেছে জড়িতরা।

তবে অপর আরেকটি ভিডিও বার্তায় ওই দুই তরুণী বলছেন, তারা স্বেচ্ছায় ইসলাম ধর্মগ্রহণ করেছেন। কেউ তাদের ওপর জোর করেনি।

ঘটনার পর প্রদেশটির হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা ফুঁসে ওঠে। তবে আক্রমনাত্মক হয়ে ওঠার আগেই এ ব্যাপারে সিন্ধু ও পাঞ্জাব সরকারকে এ বিষয়ে তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। দুটি টুইটবার্তায় পাকিস্তানের তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

একটি টুইটে বলা হয়; যদি সত্যিই তাদের অন্যত্র সরানো হয়, তা হলে দ্রুত তাদের উদ্ধার করে নিজ শহরে ফিরিয়ে আনার নির্দেশ দিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী।

অপর টুইটে বলা হয়, প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান সিন্ধু সরকারকে এ বিষয়ে খুব দ্রুত কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত দোল উৎসবের আগে গত বুধবার পাকিস্তানের সিন্ধুপ্রদেশের ঘোটকি এলাকা থেকে নিরুদ্দেশ হয়ে যায় ১২ বছরের রবিনা ও ১৪ বছরের রিনা। এরপর তাদের বাবা ও ভাইয়েরা সিন্ধুপ্রদেশ পুলিশের কাছে অভিযোগ জানান।

এতে বলা হয়, ঘোটকির ধারকি শহরের হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন যখন দোল উৎসবের প্রস্তুতিতে ব্যস্ত ছিল, তখনই অপহরণ করে নিয়ে যাওয়া হয় রবিনা ও রিনাকে। এর পর অভিযোগ ওঠে, অপহরণ করে তাদের জোর করে ইসলাম ধর্মে ধর্মান্তরিতও করা হয়েছে।

গতকাল শনিবার একটি ভিডিও ভাইরাল হতেই উত্তাল হয়ে ওঠে সিন্ধুপ্রদেশ। ভিডিওতে স্পষ্ট দেখা গেছে, বিয়ে দিয়ে দুই নাবালিকাকে ইসলাম ধর্মে দীক্ষিত করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করা হয়। প্রতিবাদে সকাল থেকে রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ শুরু করেন স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন।

X